ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / সারা বাংলা / বিস্তারিত
ADS

নরেন্দ্র মোদিকে বরণে প্রস্তুত ওড়াকান্দি

২৬ মার্চ ২০২১, ৬:৫৮:২৬

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শনিবার গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার মতুয়া সম্প্রদায়ের তীর্থস্থান শ্রীধাম ওড়াকান্দি ঠাকুর বাড়িতে যাচ্ছেন। মোদির আগমনকে ঘিরে নিরাপত্তা বলয় তৈরিসহ বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে ঠাকুর বাড়িকে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এ সফরকে ঘিরে মতুয়াদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা গেছে। ঠাকুরবাড়ি ও আশপাশের এলাকায় বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। মোদিকে উলুধ্বনি, শঙ্খ ও ডঙ্কা-কাঁসা বাজিয়ে তাকে বরণ করে নেবেন মতুয়া ভক্তরা।

মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ২৭ মার্চ টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধতে শ্রদ্ধা জানাবেন নরেন্দ্র মোদী। সেখান থেকে সকাল সাড়ে ১০টায় কাশিয়ানীর ওড়াকান্দি ঠাকুর বাড়ি যাবেন। সেখানে তিনি হরিচাঁদ ও গুরুচাঁদ মন্দিরে পূজা-অর্চনা শেষে মতুয়া সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন বলে জানা গেছে। নরেন্দ্র মোদিকে বরণ করতে প্রস্তুত মতুয়ারা।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিরাপত্তা নিশ্চিতে তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ঠাকুরবাড়ির চার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে চারস্তরের নিরাপত্তা বেষ্টনী। গোটা এলাকা ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায় আনা হয়েছে। ঠাকুরবাড়ির চারপাশ বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে।

কাশিয়ানী উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান জানান, ওড়াকান্দি হরিচাঁদ ঠাকুরের বাড়িতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরকে ঘিরে জরুরি ভিত্তিতে চারটি হেলিপ্যাড ও হেলিপ্যাড থেকে ঠাকুর বাড়িতে যেতে সড়ক নির্মাণ, ঠাকুরবাড়ির অভিমুখী সংযোগ সড়কগুলো সংস্কার, ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক থেকে ঠাকুরবাড়ি পর্যন্ত আট কিলোমিটারের বেশি পাকা সড়ক সংস্কার, তিলছড়া-রাহুথড় সড়ক থেকে ঠাকুরবাড়ি প্রবেশের জন্য ৬শ মিটার পাকা সড়ক সংস্কার ও সৌন্দর্যবর্ধন করা হয়েছে।

এছাড়া ভিআইপি গেস্ট হাউজ, বিশ্রামাগার, পাবলিক টয়লেট ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা করেছে জেলা জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল বিভাগ। প্রস্তুত রাখা হয়েছে হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস।

মতুয়া ভক্ত সাথী বিশ্বাস বলেন, ঠাকুর বাড়ি মতুয়া সম্প্রদায়ের তীর্থস্থান। প্রতি বছর লাখ লাখ মতুয়া ভক্ত স্নানোৎসবে অংশ নিতে ঠাকুর বাড়িতে আসেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী ঠাকুর বাড়ি আসার খবরে আমরা খুবই আনন্দিত। তার আগমনে আমরা মতুয়া সম্প্রদায় ধন্য হব। এতে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে।

ঠাকুরবাড়ির অন্যতম সেবায়েত পদ্মনাভ ঠাকুর বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টার থেকে নামার পর হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ ঠাকুরের মন্দিরে আসবেন। সেখানে তিনি পূজা শেষে মন্দিরের সামনেই ঠাকুরবাড়ির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। এতে প্রায় সাড়ে ৩শ মতুয়া ভক্ত অংশ নেবেন।

হরিচাঁদ ঠাকুরের ষষ্ঠ পুরুষ ও কাশিয়ানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুব্রত হিল্টু ঠাকুর বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী ঠাকুরবাড়ির পক্ষ থেকে বরণ করে নিতে সাধ্যমতো প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ মতুয়া মহাসংঘের সভাপতি সীমা দেবী ঠাকুর বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী আমাদের এই ঠাকুর বাড়িতে আসছেন, এটা শুধু ঠাকুর বাড়ির গর্বের বিষয় নয়, সব মতুয়ার কাছে গর্বের বিষয়। তিনি এলে আমরা হিন্দুধর্মীয় মতে উলুধ্বনি, শঙ্খ ও ডঙ্কা-কাঁসা বাজিয়ে তাকে স্বাগত জানানোর সব আয়োজন করে রেখেছি।

জেলা পুলিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, ২৭ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী কাশিয়ানীর ওড়াকান্দি ঠাকুর বাড়ি সফর করবেন। এ সফরকে ঘিরে গোটা এলাকা নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। গোয়েন্দা নজরদারি করা হচ্ছে। সফরকে সুষ্ঠু ও সফল করতে গোপালগঞ্জ জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, ২৭ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী কাশিয়ানীর ওড়াকান্দি ঠাকুর বাড়ি সফর করবেন। এ সফরকে ঘিরে আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এখন আমরা সফরের অপেক্ষা করছি। আশা করছি এই সফর সুন্দর ও সফল হবে।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: