ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / স্বাস্থ্য / বিস্তারিত
ADS

রাতে তরমুজ খেলেই বিপদ!

১৫ মার্চ ২০২১, ৯:০১:২৩

হৃদপিণ্ডের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখে তরমুজ। রসালো জাতীয় এই ফল পছন্দ করেন না এমন মানুষ হয় তো নেই। পটাশিয়াম ও লাইকোপিনের মতো গুরুত্বপূর্ণ সকল খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ তরমুজ। এছাড়াও এতে রয়েছে ভিটামিন ও মিনারেল।

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতে, নিয়মিত তরমুজ খাওয়ার ফলে পেশির ব্যথা দূর হয় এবং হৃদরোগের সমস্যা থেকে শুরু করে ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তেও সহায়তা করে। তবে এর উপকারিতা পেতে হলে অবশ্যই নিয়মানুযায়ী তরমুজ খেতে হবে। তা না হলে সমস্যা হতে পারে। এবার তাহলে তরমুজ খাওয়ার সঠিক সময় ও নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

সাধারণত সন্ধ্যার পর শরীরের হজম প্রক্রিয়া কমে যায়। এ কারণেই রাতের খাবারে হালকা খাবার রাখার জন্য বলে থাকেনে বিশেষজ্ঞরা। এই সময় তরমুজ খাওয়ার থেকে না খাওয়াই ভালো। কেননা, তরমুজে অনেক পানি এবং প্রাকৃতিক অ্যাসিড থাকায় পেটে ব্যথা বা গ্যাস্ট্রিকজনিত সমস্যার সম্ভাবনা থাকে।

তরমুজে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক চিনি রয়েছে। এই চিনি শরীরের জন্য ভালো হলেও রাতে মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়া একদমই উচিত নয়। এতে করে ওজন বাড়তে পারে। রসালো এই ফলে ৯২ শতাংশ পর্যন্ত পানি থাকে। ফলে রাতে তরমুজ খাওয়ায় একাধিকবার টয়লেটে যাওয়ার মতো সমস্যা হতে পারে। এমনকি পেট ফোলা ভাবও হয়ে থাকে। সেই সঙ্গে ঘুমে সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

তরমুজ খাওয়ার ফলে যদি এসব সমস্যা হয় তাহলে সঠিক সময় কখন- এ নিয়ে প্রশ্ন জাগতেই পারে। তরমুজ অবশ্যই খাওয়া যাবে। দিনের যে কোনও সময়ই তরমুজ খেতে পারেন আপনি। তবে কখনোই একসঙ্গে অনেক বেশি না খেয়ে অল্প অল্প করে একাধিকবার কয়েক টুকরো খেতে পারেন। সকালের নাস্তায় খাওয়া সব থেকে ভালো হতে পারে। এতে শরীরে শক্তি জোগাবে এবং শরীর-মন দুটো সতেজ থাকবে। মনে রাখতে হবে তরমুজ খাওয়ার ৩০-৪০ মিনিটের মধ্যে পানি পান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: