ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / জাতীয় / বিস্তারিত
ADS

১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালায় আসছেন বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানসহ অতিথিরা

১৫ মার্চ ২০২১, ৯:৩১:০০

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে ১০ দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে যা আগামী ১৭ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হবে। এতে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের ধারণকৃত ভিডিও বক্তব্য প্রদর্শন করা হবে।

আজ সোমবার রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি জানান, ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে ১৭, ২২ এবং ২৬শে মার্চের অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এবং ১৭, ১৯, ২২, ২৪ ও ২৬শে মার্চের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন। এই পাঁচ দিনের অনুষ্ঠানে বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান এবং সরকার প্রধানগণ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

আগামী ১৭ই মার্চের অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ্‌, ১৯শে মার্চের অনুষ্ঠানে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে, ২২শে মার্চের অনুষ্ঠানে নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী, ২৪শে মার্চের অনুষ্ঠানে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডাঃ লোটে শেরিং এবং ২৬শে মার্চের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত থাকবেন। এই পাঁচ দিনের অনুষ্ঠানসহ দশ দিনের অনুষ্ঠানমালায় বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের ধারণকৃত ভিডিও বক্তব্য প্রদর্শন করা হবে। জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের অনুষ্ঠানমালা ইলেক্ট্রনিক ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ১০ দিনব্যাপী এ আয়োজনে বিভিন্ন বিদেশী রাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান/ সরকার প্রধানগণের বক্তব্য ও ভিডিও বার্তা ছাড়াও বিদেশি সাংস্কৃতিক দলের পরিবেশনা থাকবে।

তবে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় সীমিত সংখ্যক আমন্ত্রিত অতিথির উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানসমূহ আয়োজনের পরিকল্পনা করা হয়েছে।

২৬শে মার্চ বাংলাদেশ ও ভারত-দু’দেশের সরকার প্রধানের উপস্থিতিতে ‘বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল চিত্রপ্রদর্শনী আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে পরবর্তীতে যা ঢাকাসহ দেশের প্রধান শহরগুলোতে প্রদর্শন করা হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফর

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে আগামী ২৬-২৭ মার্চ বাংলাদেশ সফর করবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, তিনি মূলত মুজিববর্ষ উদ্‌যাপন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের যৌথ উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রীয়ভাবে এই সফর করছেন। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও বিভিন্ন দপ্তরের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ তাঁর সফরসঙ্গী হিসেবে যোগ দেবেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সফরের প্রথম দিন, ২৬ মার্চ রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে তাঁকে বিমানবন্দরে গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে। এরপর তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবেন। একই দিন বিকেলে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য প্রদান করবেন। সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে যৌথভাবে তিনি বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনী পরিদর্শন করবেন।

সফরের দ্বিতীয় দিন, ২৭ মার্চ সকালে তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ পরিদর্শন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। তাছাড়া, তিনি সাতক্ষীরা এবং গোপালগঞ্জে দুইটি মন্দির পরিদর্শন করে স্থানীয় জনগণের সাথে সংক্ষিপ্ত পরিসরে মতবিনিময় করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

২৭ মার্চ বিকেলে দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে একান্ত বৈঠক ছাড়াও প্রতিনিধি পর্যায়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। দুই প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে কিছু সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর এবং কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধনের সম্ভাবনা রয়েছে। উভয় প্রধানমন্ত্রী একইসাথে নিজ নিজ দেশের পক্ষে বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে পৃথক দুইটি স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন করবেন। এছাড়া ভারতের প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন। সফরশেষে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী ২৭ মার্চ রাতে দিল্লীর উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহাম্মেদ সোলিহ আসছেন ১৭ মার্চ

মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহাম্মেদ সোলিহ বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণে আগামী ১৭-১৯ মার্চ রাষ্ট্রীয় সফরে সস্ত্রীক বাংলাদেশ সফরে আসবেন।

মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতির সফরসঙ্গী হিসাবে তাঁর সহধর্মিনী ফার্স্টলেডি ফাজনা আহমেদ, পররাষ্ট্রমন্ত্ৰী আব্দুল্লাহ শহীদ, ও অর্থনৈক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্ৰীসহ মোট ২৭জন অতিথি আসবেন। ১৭ মার্চ সকালে বিমানবন্দরে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতিকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপ্রতি স্বাগত জানাবেন। তারপর তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে এবং ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সম্মান জানাবেন। ১৭ মার্চ বিকালে ন্যাশনাল প্যারেড গ্রাউন্ডে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিবেন এবং সেখানে বক্তব্য প্রদান করবেন। ১৮ মার্চ সকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সাথে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। এবং রাষ্ট্রপ্রতির আতিথিয়তায় বঙ্গভবনে সন্ধ্যায় তিনি একটি রাষ্ট্রীয়ভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ শেষে ১৮ মার্চ রাতেই (১৯ মার্চ রাত ১ ঘটিকায়) বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন।

শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে আগামী ১৯-২০ মার্চ বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় সফর করবেন। সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর সাথে আনুষ্ঠানিক দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে অংশগ্রহণ করবেন। এ সফরে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে শ্রীলংকার শিক্ষা মন্ত্রী, আঞ্চলিক সহযোগিতা প্রতিমন্ত্রী, তাঁত ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী, গ্রামীণ গৃহায়ন ও গৃহ নির্মাণ সামগ্রী শিল্প প্রতিমন্ত্রী, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এবং সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ সহ ২৮ সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদল থাকবেন।

১৯ মার্চ শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাবেন। এছাড়াও তাঁকে ২১টি গান স্যালুটসহ আনুষ্ঠানিক গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে। তিনি সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। বিকেলে তিনি জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে বিশেষ অনুষ্ঠানমালায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। সন্ধ্যায় তাঁর সম্মানে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নৈশভোজে অংশগ্রহণ করবেন। পরদিন, তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করবেন।

২০ মার্চ দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ে আনুষ্ঠানিক দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এ বৈঠকে দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট দ্বিপাক্ষিক বিষয়াবলী যেমনঃ বানিজ্য, বিনিয়োগ, কৃষি, উপকূলীয় জাহাজ চলাচল, শিক্ষা, তথ্য প্রযুক্তি বিষয়াবলীতে পারস্পরিক সহযোগীতা প্রভৃতি অধিক গুরুত্ব পাবে। বৈঠক শেষে একাধিক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের কথা রয়েছে। বিকেলে তিনি রাষ্ট্রপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন এবং সন্ধ্যায় কলম্বোর উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী আসছেন ২২ মার্চ

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের আমন্ত্রণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে নেপালের রাষ্ট্রপতি মিসেস বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী আগামী ২২-২৩ মার্চ বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় সফর করবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, এটি হবে বাংলাদেশে নেপালের প্রথম রাষ্ট্রপতি পর্যায়ের সফর।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী ২২ শে মার্চ সকালে ঢাকায় পৌঁছাবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। ঢাকায় অবতরণের পরপরই তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাবেন। বিকেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সাথে সাক্ষাত করবেন। এরপরে তিনি জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন।

সন্ধ্যায় নেপালের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির সাথে সাক্ষাত করবেন। উভয় রাষ্ট্রপতির উপস্থিতিতে দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি/ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হতে পারে। চুক্তি/ সমঝোতা স্মারক সমূহ স্বাক্ষরিত হলে, দুই দেশের মধ্যে পর্যটন খাত, সাংস্কৃতিক যোগাযোগ ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার হবে বলে আশা করা যাচ্ছে, জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

২৩ শে মার্চ নেপালের রাষ্ট্রপতি কাঠমান্ডুতে ফিরে যাওয়ার আগে তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ড. লোটে শেরিং আসছেন ২৩ মার্চ

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ড. লোটে শেরিং আগামী ২৩-২৫ মার্চ বাংলাদেশ সফর করবেন।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদ্‌যাপন ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ ছাড়াও ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরের সময় বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিষয়াবলি আলোচিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে একান্ত বৈঠক ছাড়াও প্রতিনিধি পর্যায়ের সংলাপও অনুষ্ঠিত হবে।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: