ADS
হেডলাইন
◈ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ এখন প্রতিষ্ঠা পেয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ ইসরায়েলকে ৭৩ কোটি ডলার মূল্যের অস্ত্র দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ◈ রিমান্ডে রাজি হলেও আদালতে ভোল পাল্টালেন বাবুল ◈ আগামী ৭ দিন পর লকডাউনের ব্যাপারে নতুন সিদ্ধান্ত ◈ ‘আওয়ামী লীগকে মায়ের স্নেহে চারবার রাষ্ট্রক্ষমতায় নিয়েছেন শেখ হাসিনা’ ◈ ব্যাংক কোম্পানি আইনে জরিমানার সঙ্গে ফৌজদারি মামলার বিধান আসছে ◈ বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যরা পাবেন এসএসএফের নিরাপত্তা ◈ বাংলাদেশে করোনার চারটি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে ◈ আইপিএল বন্ধের পর বিস্ফোরক তথ্য ফাঁস ◈ কোয়ারেন্টাইনে ধর্ষণ: গ্রেপ্তারের পর বরখাস্ত পুলিশ কর্মকর্তা ◈ বাংলাদেশ এগিয়ে যাবেই : প্রধানমন্ত্রী ◈ যে কারণে মৃত ব্যক্তির গোসলের পানিতে বরই পাতা দেয়া হয় ◈ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বরবটির সালাদ খান ◈ ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল এডিট করবেন যেভাবে ◈ মাছের মাথা দিয়ে সুস্বাদু মুড়িঘণ্ট ◈ রুক্ষ চুল সতেজ করতে কফি ◈ নোবেলের বিরুদ্ধে জিডি ◈ ঢাকাসহ সারাদেশে কালবৈশাখীর পূর্বাভাস ◈ পশ্চিমবঙ্গের ৪ মন্ত্রী গ্রেফতার, আদালতের কড়া প্রশ্নের মুখে সিবিআই ◈ শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেওয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে
ADS

৮৭ দিন পর সর্বোচ্চ শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২৬

১৫ মার্চ ২০২১, ৫:৩০:৫৩

দেশে গত একদিনে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে। ৬৬ দিন পর সর্বোচ্চ ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এ সময়ে। এর আগে সবশেষ গত ৭ জানুয়ারি তার আগের ২৪ ঘণ্টায় ৩১ জনের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছিলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৭৭৩ জন, যা ৮৭ দিন পর সর্বোচ্চ।

রবিবার বিকালে গণমাধ্যমে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে এ তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ হাজার ৬৯৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে শনাক্ত হন ১ হাজার ৭৭৩ জন। যা ৮৭ দিন পর সর্বোচ্চ।

চলতি বছরের জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে শনাক্তের সংখ্যা কমতে থাকে। ৯ জানুয়ারি দৈনিক শনাক্তের সংখ্যা সাতশোর ঘরে (৬৯২) নামে। সর্বশেষ ২৫ জানুয়ারি ৬০২ জন শনাক্তের তথ্য জানানো হয়। এরপর পাঁচ সপ্তাহ দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছয়শোর নিচে ছিল। এমনকি ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে তিনশোর নিচেও নেমেছিল। এরপর গত ৩ মার্চ থেকে শনাক্তের সংখ্যা টানা তিনদিন (৬১৪, ৬১৯, ৬৩৫) ছয়শোর বেশি হয়। এরপর ৯ মার্চ ৯১২ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিল ৫.১৪ শতাংশ, যা তার আগের ৫৬ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ। এরপর গত ১০ মার্চ শনাক্তের সংখ্যা আবারো হাজার ছাড়ায়, যা তার আগের দুই মাসের (৬১ দিন) মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছিল।

এ পর্যন্ত ৪২ লাখ ৮৩ হাজার ২৪৬টি পরীক্ষায় মোট শনাক্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৫৯ হাজার ১৬৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৯.৪৮ শতাংশ। মোট শনাক্তের হার ১৩.৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত একদিনে যে ২৬ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ২১ জন ও নারী পাঁচজন। এদের ১৯ জনই ষাটোর্ধ্ব। আর বাকি সাতজনের মধ্যে ৫১-৬০ বছরের মধ্যে পাঁচজন ও ৪১-৫০ বছরের মধ্যে দুই জন। এ নিয়ে ৮ হাজার ৫৭১ জনের মৃত্যু হলো করোনায়। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হার ১.৫৩ শতাংশ।

এ ছাড়া গত একদিনে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৩২ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৫ লাখ ১৩ হাজার ১২৭ জন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থতার হার ১৩.৫ শতাংশ।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত বছরের ৮ মার্চ; তা সোয়া ৫ লাখ পেরিয়ে যায় চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি। এর মধ্যে গতবছরের ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গতবছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেবছরের ২৯ ডিসেম্বর তা সাড়ে সাত হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত বছরের ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: