ADS
হেডলাইন
◈ করোনা থেকে বাঁচতে কোন মাস্ক বেশি নিরাপদ ◈ ঈদে ঘরেই ভ্রু প্লাক করবেন যেভাবে ◈ ইফতারে মজাদার গার্লিক ব্রেড তৈরি করবেন যেভাবে ◈ সোহরাওয়ার্দীর গাছ কাটা বন্ধে ৬ সংগঠন ও এক ব্যক্তির রিট ◈ আগামী তিনদিন ঝড়-বৃষ্টি বাড়তে পারে ◈ খালেদা জিয়ার আবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ◈ চলছে বিজিবির টহল, তবুও যাত্রী নিয়ে ছাড়লো ফেরি ◈ ড. ওয়াজেদ মিয়ার আদর্শ নতুন প্রজন্মের পাথেয় হয়ে থাকবে: রাষ্ট্রপতি ◈ করোনায় বেসামাল ভারত, সংক্রমণ চার লাখের নিচে নামছেই না ◈ মা দিবসের শুভেচ্ছা জানালেন সাকিব ◈ ২৭ দিন পর করোনামুক্ত খালেদা জিয়া ◈ দেশবরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী ওয়াজেদ মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী আজ ◈ সাদিক খান আবারও লন্ডনের মেয়র ◈ ফেরিঘাটে মানুষের পারাপার ঠেকাতে বিজিবি মোতায়েন ◈ ভারত মহাসাগরে আছড়ে পড়লো চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষ ◈ আজ পবিত্র লাইলাতুল কদর ◈ বিশ্ব মা দিবস আজ ◈ আসুন, দোয়া করি আল্লাহ যেন করোনা থেকে মুক্তি দেন: প্রধানমন্ত্রী ◈ রাবির সেই বিতর্কিত নিয়োগপ্রাপ্তদের যোগদান স্থগিত ◈ ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধ আরও ১৪ দিন
হোম / অর্থনীতি / বিস্তারিত
ADS

লকডাউনে ব্যাংক চলবে কিভাবে জানা যাবে রবিবার

৩ এপ্রিল ২০২১, ৬:০৫:৪০

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় সারাদেশে সাত দিন লকডাউন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সোমবার থেকে এক সপ্তাহের জন্য সারাদেশে লকডাউন দেয়া হবে বলে সকালে জানিয়েছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

চলতি সপ্তাহে লকডাউন দেয়া হলে ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলো কীভাবে পরিচালিত হবে, সেই সিদ্ধান্ত এখনও জানা যায়নি। লকডাউনের চূড়ান্ত প্রজ্ঞাপন প্রকাশ হলেই ব্যাংক খাতের কার্যক্রম নিয়ে সিদ্ধান্ত আসবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম।

ঢাকাটাইমসকে বাংলাদেশ ব্যাংকের এই মুখপাত্র বলেন, লকডাউনের চূড়ান্ত প্রজ্ঞাপন প্রকাশ হলেই ব্যাংকিং খাত নিয়ে সিদ্ধান্ত আসবে। কিভাবে ব্যাংকগুলো চলবে বা লেনদেন স্বাভাবিক রাখতে কি সিদ্ধান্ত আসে তা আগামীকাল রবিবার জানা যাবে।

গতবছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হলেও তাৎক্ষণিকভাবে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার। করোনা নিয়ন্ত্রণে গতবছর ২৩ মার্চ প্রথমবার ‘সাধারণ ছুটির’ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। শুরুতে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ‘ছুটি’ ঘোষণা হলেও পরে তার মেয়াদ বাড়ে কয়েক দফা।

সে সময় সব অফিস আদালত, কল-কারখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সারা দেশে সব ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। ছুটির মধ্যে সব কিছু বন্ধ থাকার সেই পরিস্থিতি ‘লকডাউন’ হিসেবে পরিচিত পায়। কিন্তু তাতে নিম্নবিত্তের জীবন-জীবিকা আর দেশের উৎপাদন ব্যবস্থা অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়লে বিভিন্ন মহলের দাবিতে সরকার ৩১ মের পর থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ শিথিল করতে থাকে। বছরের শেষে এসে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকা ছাড়া আর সব কড়াকড়িই উঠে যায়।

এরপর দেশে করোনার সংক্রমণ অনেকটা কমে আসে। মার্চের শেষ দিয়ে করোনা আরও মারাত্মক আকার ধারণ করে। এমন পরিস্থিতিতে সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয়সহ সকল ক্ষেত্রে সব ধরনের জনসমাগম সীমিত করাসহ ১৮ দফা নির্দেশনা জারি হয়। এরপর সেগুলো বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা ও কড়াকড়ির ঘোষণা আসতে থাকে।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: