ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / সারা বাংলা / বিস্তারিত
ADS

ইয়াসের প্রভাবে পটুয়াখালীতে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি

২৫ মে ২০২১, ১২:৫০:৫৪

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে উত্তাল হয়ে উঠেছে সাগর। পটুয়াখালীতে ঢেউয়ে ভেসে গেছে সাগরপাড়ে থাকা প্রায় অর্ধশতাধিক দোকান।

মঙ্গলবার (২৫ মে) সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি একই এলাকায় ঘনীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। এটি ঘনীভূত হয়ে নিম্নচাপ এবং পরবর্তী গভীর নিম্নচাপ ও ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। সেজন্য পটুয়াখালীর পায়রা বন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
এদিকে উপকূলের বৈরী আবহাওয়ার কারণে সাগর উত্তাল রয়েছে। সোমবার রাত থেকে উপকূলজুড়ে বইছে দমকা হাওয়া। বড় বড় ঢেউ আছড়ে পড়ছে সাগর তীরে। সাগরপাড়ে থাকা ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে গেছে কুয়াকাটার প্রায় অর্ধশতাধিক অস্থায়ী দোকান। যার মধ্যে বেশিরভাগ রয়েছে শুটকি, ঝিনুক, চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনীর দোকান রয়েছে।

কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশ সমুদ্রে কাউকে না নামার জন্য মাইকিং করে যাচ্ছে। গভীর সমুদ্রে মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে জেলেরা উপকূলে নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে। জেলেরা জানিয়েছে, লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। প্রচণ্ড ঢেউয়ে সমুদ্রে টিকতে না পেরে তারা ট্রলার নিয়ে উপকূলে ফিরে এসেছে।

এর আগে সোমবার (২৪ মে) বিকেলে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবিলায় পটুয়াখালীতে দুর্যোগ প্রস্তুতি বিষয়ক সভা করেছে জেলা প্রশাসন।

ওই সভায় জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় জেলায় ৮০৩ টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ৮৭টি মেডিকেল টিম গঠন, পর্যাপ্ত শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানিসহ মোমবাতি ও দিয়াশলাই মজুত রাখার কাজ শুরু করা হয়েছে। এজন্য বিভিন্ন উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে ২ কোটি চুয়ান্ন লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ, সিপিপি, রেড ক্রিসেন্ট, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সসহ ফায়ার সার্ভিসের কমিউনিটি ভলান্টিয়ার টিমের সদস্যরা।

এছাড়া জেলা প্রশাসনের একটি, জেলা পুলিশ একটি ও স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে তিনটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডও।

পটুয়াখালী জেলায় ৮২০কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে। এর মধ্যে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ রয়েছে ১৮কিলোমিটার, সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ রয়েছে ৬ কিলোমিটার। ইতোমধ্যে ১৮ কিলোমিটার আংশিক বেড়িবাঁধের মধ্যে ৮কিলোমিটার বেড়িবাঁধের কাজ চলমান রয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ড সকল প্রস্তুতির কথা জানিয়েছেন পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: