ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / জাতীয় / বিস্তারিত
ADS

আগামী জুলাই মাসে সংসদের চারটি শূন্য আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সেই লক্ষ্যে ২৪ মে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। সভা শেষে ইসি সচিবালয়ের সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার সাংবাদিকদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। শূন্য আসনগুলো হলো লক্ষ্মীপুর-২, সিলেট-৩ ও ঢাকা-১৪ ও কুমিল্লা-৫। এ চারটি আসনে নির্বাচনের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়েছে জানিয়ে ইসি সচিব বলেন, লকডাউন চলার কারণে সময় সূচি ঘোষণা করা হয়নি। আগামী ২৪ মে নির্বাচনের পরবর্তী সভা অনুষ্ঠিত হবে। ওই বৈঠকে তারিখ ঠিক করা হবে। তিনি আরও বলেন, শূন্য আসনে যেহেতু উপনির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তাই কমিশন এ চারটি আসনে জুলাই মাসে নির্বাচন আয়োজন করবে।

১৯ মে ২০২১, ৯:১১:৫১

মেয়রের দায়িত্ব পালনের এক বছরে মশা নিয়ন্ত্রণে সফলতার দাবি করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

দায়িত্বগ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বুধবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন। দুপুরে ডিএসসিসি নগর ভবনের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মিলনায়তনে ‘উন্নত ঢাকার ভীত’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে বিগত এক বছরের সার্বিক কাজের চিত্র তুলে ধরেন তাপস।

মেয়র বলেন, করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে যাতে নগরবাসীকে ডেঙ্গুর পীড়াদায়ক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে না হয়, সে জন্য শুরু থেকেই মশক নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে বেশি জোর দিয়েছি।

বিগত এক বছরের কাজের চিত্র তুলে ধরতে গিয়ে পুরান ঢাকা অধ্যুষিত দক্ষিণ ঢাকার এ নগরপিতা বলেন, গত এক বছরে ডিএসসিসিতে ডেঙ্গুতে কেউ আক্রান্ত হয়নি। আল্লার রহমতে আমরা সফলতা পেয়েছি। এ বছর জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে কিউলেক্স মশার উপদ্রব বাড়লেও অল্প সময়ের ব্যবধানে সেটা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি।

গত বছরের মতো এবারও রাজধানীবাসীকে ডেঙ্গুর উপদ্রব থেকে মুক্তি দেওয়া সম্ভব হবে বলে আশ্বস্ত করেন মেয়র।

এ সময় আসন্ন বর্ষায় নগরবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে বহুলাংশে মুক্তি দিতে পারবেন জানিয়েছেন ডিএসসিসি মেয়র তাপস। বলেন, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী নাগরিক সেবা নিশ্চিত করে নিরলসভাবে কাজ করছে ডিএসসিসি। এরমধ্যে জলাবদ্ধতা নিরসনে ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে খাল বুঝে নিয়ে পানি নিষ্কাশনের উপযোগী করা হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র তাপস বলেন, বৈশ্বিক করোনা মহামারির মধ্যে আমি মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। এরপর থেকে আমার নির্বাচনী ইশতেহার ঐতিহ্যের ঢাকা, সুন্দর ঢাকা, সচল ঢাকা, সুশাসিত ঢাকা ও আধুনিক ঢাকা বাস্তবায়নের কাজ শুরু করেছি। করোনা মহামারির বাস্তব পরিস্থিতির কারণে এ সময়ে ডিএসসিসির নতুন কোনো প্রকল্প অনুমোদন পাইনি। সে কারণে নিজস্ব অর্থায়নে আমরা রুটিন, উন্নয়ন ও সংস্কার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। সংস্থার সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা রেকর্ড ৫২৪ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করেছি। চলতি অর্থবছরে মধ্যে এ অংক ৬০০ কোটিতে পৌঁছাবে বলে আশা করছি। এ ছাড়া খাল উন্নয়, সংস্কার, ওয়ার্কওয়ে ও আধুনিকায়ন প্রকল্প মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেয়েছে। এটা একনেকের অনুমোদন পেলেই আমরা খালগুলোর দীর্ঘস্থায়ী উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু করব।

মেয়র বলেন, আমরা চিন্তা করেছি প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি মাঠ, একটি সেকেন্ডারি স্টেশন সেন্টার (এসটিএস), একটি কমিউনিটি সেন্টার ও একটি কাঁচাবাজার নির্মাণ করব। আর পরিকল্পিতভাবে শহর গড়ে তুলতে ‘সমন্বিত ঢাকা শহর মহাপরিকল্পনা ২০২০ থেকে ২০৫০ বছর মেয়াদী প্রণয়নের কাজ চলছে। আগামীতে ঢাকা দিবস ও নৌকা বাইচ বাস্তবায়নে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে। শিগগিরই মীর জুমলা গেইট সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের কার্যক্রম শুরু করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্যানেল মেয়র-১ এবং ৪৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. শহিদ উল্লাহ মিনু, ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মাদ, কাউন্সিলর ও সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: