ADS
ব্রেকিং নিউজঃ
হোম / আইন-আদালত / বিস্তারিত
ADS

মিতু হত্যা মামলায় শাকু ৪ দিনের রিমান্ডে

১৩ মে ২০২১, ৭:৪৭:৫১

চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার এজাহার নামীয় আসামি সাইদুল ইসলাম সিকদার প্রকাশ শাকুর চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত এ আদেশ দিয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবউদ্দিন।

সম্প্রতি, বুধবার (১২ মে) রাত ১০টার দিকে রাঙ্গুনিয়ার রানীরহাট বাজার এলাকা থেকে শাকুকে (৪৫) গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন-৭ (র‌্যাব)। আজ সকালে তাকে পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বুধবার বাবুল আক্তারসহ আটজনকে আসামি করে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় নতুন করে মামলা করেন মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন। সেই মামলায় শাকুকে আসামি করা হয়েছে। শাকু মিতু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি মুছার ভাই।

মিতু হত্যা মামলার আসামিরা হলেন- তার স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তার, তার সোর্স কামরুল ইসলাম সিকদার ওরফে মুসা, এহতেশামুল হক ভোলা, মোতালেব মিয়া ওরফে ওয়াসিম, আনোয়ার হোসেন, খায়রুল ইসলাম ওরফে কালু, সাইফুল ইসলাম সিকদার ওরফে শাকু ও শাহজাহান মিয়া।

এর আগে, মঙ্গলবার (১১ মে) নিহত মিতুর স্বামী সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারকে গ্রেফতার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পরদিন তাকে আদালতে হাজির করলে বিচারক তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকাল ৭টা ১৭ মিনিটে চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় মোটরসাইকেলে করে তিন দুর্বৃত্ত মিতুকে ঘিরে ধরে প্রথমে গুলি করে। এরপর কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ওই সময় মিতুর স্বামী বাবুল আক্তার পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি পেয়ে পুলিশ সদর দপ্তরে যোগ দিয়ে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। এ ঘটনায় নগরীর পাঁচলাইশ থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন বাবুল আক্তার। মামলাটি চট্টগ্রামের নগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে ৩ বছর ১১ মাস তদন্তে থাকার পর গত বছরের মে মাসে মামলাটি পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশনে (পিবিআই) স্থানান্তর করা হয়। মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা হলেন পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা। পরে তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই।

ADS ADS

প্রতিছবি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: